DjM Originals : ইরফান খান এর শেষ মেসেজ, জীবন যখন আপনার হাতে একটি লেবু ধরিয়ে দেয়

DjM Originals : ইরফান খান এর শেষ মেসেজ

DjM Originals : ইরফান খান এর শেষ মেসেজ, কিছু অভিনেতা “লাঞ্চ বক্স” এর মতোই, দৈনন্দিন জীবনের সঙ্গে আঙা অঙ্গী ভাবে জড়িয়ে যান। বলিউড অভিনেতা ইরফান খান ও ঠিক সেরকম ভাবেই আমাদের বহু মানুষের জীবনের সঙ্গে আমাদের অজান্তেই জড়িয়ে গেছেন।
ইরফান খান তার প্রত্যেকটি সিনেমা দিয়ে সকলের জীবন কে ভীষণ ভাবে প্রভাবিত করে গেছেন। তাঁর প্রত্যেকটি সিনেমায় তিনি জীবন কে নুতন ভাবে বাঁচতে শিখিয়েছেন, জীবনকে নুতন ভাবে দেখতে শিখিয়েছেন।

ইরফান খান এর সর্বকালের সেরা সিনেমা

চলুন জেনে নিই তাঁর এরকম কিছু সিনেমা যা হয়তোবা আপনি দেখেন নি তাঁর জীবিত কলে, কিন্তু আজ আমি তার কয়েক টা সিনেমা আমি দেখার অনুরোধ করবো। Hindi Medium, life of PI, The lunch Box, Black Mail, Piku, Qarib Qarib Single, Madari, Karwan, Paan Sing Tomar, এবং তাঁর শেষ সিনেমা Angrezi Medium।

ইরফান খান এর শেষ মেসেজ

সাল ২০১৮ থেকে তাঁর শরীরে এক অবাধ পশু ক্যান্সার ঘর করে বসে। মুম্বাই এ তার প্রথম চিকিৎসা হয়। তারপর তিনি লন্ডন এ যান চ্ছিৎসা এর জন্য। অনেকটা সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন। কিন্তু তিনি জানতেন যে অবাধ পশু টি তাঁর শরীরে ঘর করে বসে আছে সে তাকে ছেড়ে যাওয়ার নোয়। তিনি যেখানে যাবেন সে তার সঙ্গে যাবে। অতএব তিনি ঠিক করলেন তাকে তিনি তার শরীরের অঙ্গ এর খেতাব দেবেন। 
২০১৮ এর পর তিনি কখনো ভেঙে পড়েননি, নিজেকে সবসময় পজিটিভ রেখেছেন, যেটা তার সিনেমা গুলি থেকে আরো ভালো বোঝা যায়। তিনি Angrezi Medium er চলুন প্রচার করতে গিয়া বলেন, ” আজ আমি আপনাদের কাছে আছি আবার নাই ও, কারণ আমার শরীরে কিছু Unwanted অথিতি এসে ঘর করেছে যার কারণে আমার বাচা মুস্কিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমি দেখছি তার সাথে কথা বলে কিছু আপোষ করা যায় নাকি। যদি সেরকম কিছু হোয় আপনাদের কে আগের থেকেই জানিয়ে দেওয়া হবে।”
এরপরে ইরফান বলেছেন – “জীবন যখন আপনার হাতে একটি লেবু ধরিয়ে দেয় তখন আপনাকে এর রস তৈরি করে নেওয়া উচিত। কথা টি বলতে এবং শুনতে খুব ভাল লাগে, কিন্তু জীবন যখন সত্যিই আপনাকে আপনার হাতে লেবু ধরিয়ে দেয়, তখন শিকনজি তৈরি করা কঠিন হয়ে পড়ে। তবে ইতিবাচক (positive)  হওয়া ছাড়া আপনার কাছে আর কোনো রাস্তা ই থাকে না? এই পরিস্থিতিতে আপনি লেবুর রস তৈরি করতে পারেন কি পারবেন না, এটি আপনার উপর নির্ভর করছে।”
এই অভিনেতা যেভাবে মারণ রোগের সঙ্গে লড়াই করেও নিজেকে সকলের সামনে উন্মুক্ত রেখেছেন। জীবনকে কিভাবে উপভোগ করতে হয় হাজার বাধা থাকলেও সেটি সকলকে শিখিয়েছেন।
আমাদের সকলকে কিন্তু তার মতোই শক্ত হতে হবে। কারণ, আমাদের জীবনে বাধা আসবেনা তার কোন গ্যারান্টি নেই অ।স সময় নিজেকে তৈরি রাখ এবং হাজার বাধা বিপত্তি আসলেও তার সামনে নিজেকে পরাস্ত হতে দিও না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *