DjM Originals

Bengla Golpo : পয়লা বৈশাখ রচনা তাপস সাঁতরা || Bengali Story : Poyla Boishakh By Tapash Satra || DjM Originals

পয়লা বৈশাখ

তাপস সাঁতরা

Bengla Golpo : পয়লা বৈশাখ রচনা তাপস সাঁতরা || Bengali Story : Poyla Boishakh By Tapash Satra || DjM Originals
Bengla Golpo : পয়লা বৈশাখ রচনা তাপস সাঁতরা || Bengali Story : Poyla Boishakh By Tapash Satra || DjM Originals
শহর থেকে খানিকটা দূরে, বস্তির এক কোণে একটি ছোট্ট ভাঙাচোরা, জরাজীর্ণ ঝুপড়িতে বুধিয়া মান্ডি থাকে তার সাড়ে চার বছরের মেয়ে মুনিয়াকে নিয়ে। দু বছর আগে শহরে এসেছিল বউয়ের চিকিৎসা করাতে। গ্রামে যা সহায় সম্বল ছিল সব বিক্রি করে দিয়েছিল বউয়ের কর্কট রোগ সারানোর জন্য। কিন্তু শেষ পর্যন্ত টাকার অভাবে বাঁচিয়ে রাখতে পারেনি। অন্যদিকে গ্রামে যাওয়ার রাস্তাও বন্ধ, যা ছিল সবই তো বিক্রি করে এসেছে। সেই থেকে এক শহরের বাবুর দয়া তে এখানে বাস। বুধিয়া অবশ্য মাসে মাসে ভাড়া দিয়ে দেয়। শহরের বাসে বাসে বাদাম বিক্রি করে যা উপার্জন করত, তা দিয়ে কোনো রকমে চলে যেত। কিন্তু আজ দীর্ঘ দিন ধরে বাস চলাচল বন্ধ। প্রথম কয়েক দিন উপার্জনের টাকা দিয়ে কোনো রকমে চলে যাচ্ছিল তারপর ধীরে ধীরে তাও শেষ। দু-দিন হল বুধিয়া শুধু জল খেয়েই আছে, মুনিয়ার জন্য অল্প যে খাবার রেখেছিল তাও কাল ফুরিয়েছে। এই কয়েক দিনে বুধিয়া দেখেছে বড় বড় রাজপ্রাসাদ থেকে সাহেব, মেমসাহেব রা নেমে এসে রাস্তার কুকুর গুলোকে খাওয়াচ্ছে কিন্তু ওরা যে দিকে থাকে সেদিন কারোর চোখ পৌঁছায় না হয়তো। একবার ভেবে ছিল ওদের কাছে গিয়ে চাইবে কিন্তু গ্রামের খেটে খাওয়া মেহনতি মানুষের কাছে চাইতে যাওয়া ভীষণ আত্মসম্মানের। বিবেকের দংশনে আর এগোতে পারেনি।
কাল সারারাত ঘুমোতে পারেনি। একদিকে ক্ষুধার জ্বালা অন্যদিকে আজকে নিজে নাই হোক মেয়ের মুখে কি করে দু-মুঠো খাবার তুলে দেবে তার চিন্তায়। ভোরের দিকে চোখ দুটো একটু লেগে এসেছিল। মুনিয়ার ডাকে চোখ খুললে, মুনিয়া বলে ” বাবা, জল আনতে গিয়েছিলাম কল তলায় শুনলাম আজ পয়লা বৈশাখে সবার ঘরে কত্ত ভালো ভালো খাবার হবে । আজ মোর ঘরে ভালো খাবার হবে না?” মেয়ের কথা শুনে বুধিয়ার দুচোখ দিয়ে জল গড়িয়ে আসতে লাগলো।

Copyright All Right Reserved : Tapash Satra

1 thought on “Bengla Golpo : পয়লা বৈশাখ রচনা তাপস সাঁতরা || Bengali Story : Poyla Boishakh By Tapash Satra || DjM Originals”

Leave a Comment

x