Skip to main content

DjM Originals Bangla Choto Golpo : হঠাৎ সারপ্রাইজ

DjM Originals : হঠাৎ সারপ্রাইজ
তন্ময় রায়

DjM Originals Bangla Choto Galpo : হঠাৎ সারপ্রাইজ
Djm Originals bangla choto golpo হঠাৎ সারপ্রাইজ লেখক তন্ময় রায়। গল্প টি করন পুরি নামক এক বৃদ্ধ এর গল্প যিনি তার জন্মদিনে ভীষণ একা বোধ করছিলেন।

DjM Originals Bangla choto golpo: টিভিতে রামায়ণ দেখছিলাম, আর এখন এই গল্পটি লিখতে লিখতে রামায়ণের বাল্মিকী একটা কথা মনে পড়ে গেল। লব এবং কুশ যখন বাল্মীকি কে জিজ্ঞাসা করেন যে, কার গতি সব থেকে বেশি? উত্তরে বাল্মিকী শব্দের গতি এবং আলোর গতি এর কথা বলেন। এরপরেও যখন লব জিজ্ঞাসা করে এরপরেও কি কারো গতি আছে যেটা আরো বেশি? তখন বাল্মিকী তাদের বলেন, "হ্যাঁ আছে, মনের গতি"।

এই গল্পটি লিখতে লিখতে বাল্মিকী এর সেই কথাটাই মনে পড়ে গেল। সত্যিই শব্দের গতি, আলোর গতি এইসব থেকেই আরো গতিতে আমাদের পুরো ব্রহ্মাণ্ডে বিচরণ করে আমাদের মনের গতি। গল্পটা কি এবারে বলি

করণ পুরি নামক একজন বৃদ্ধা হরিয়ানা এর সেক্টর 7 থাকেন এবং তিনি একাই সেই বাড়িতে থাকেন। তার একটা ছেলে আছে, সে আমেরিকায় থাকে। 28 এপ্রিল পুরি বাবুর জন্মদিন। তাকে শুভেচ্ছা জানানোর কেউ নেই। তাছাড়াও বাইরে যা অবস্থা, তাতে তিনি বাইরে গিয়ে যে একটু নিজের মতন করে খোলা আকাশের মত একটু বাঁচার চেষ্টা করবেন, সেটাও তিনি তার এই জন্মদিনের দিন করতে পারছেন না। নাকি কেউ তার বাড়িত আসছে। কারণ বাইরে যা অবস্থা তা তো সবারই জানা।

যখন আমাদের জন্মদিনের দিন আসে রাত বারোটা বাজলেই কিন্তু আমাদের মোবাইলে টুমটুম ঘন্টি বাজে, মোবাইলে ভাইব্রেশন হয়, এসএমএস আসা শুরু হয়ে যায়। তাও যদি ফেসবুকে আমাদের বার্থডে এড করা থাকে।

কিন্তু পুরি বাবুর সেটিও নেই, কিন্তু ফেসবুক অ্যাকাউন্ট আছে। মাঝেমধ্যেই একাকীত্ব সামলাতে ফেসবুক একাউন্ট ইউজ করেন। কিন্তু কি করে, বার্থডে এর ডেট ফেসবুকে দেবেন সেটি তিনি জানেন না। অতএব স্বভাবতই কেউ তাকে এসএমএস করে না।

নিজের প্রতি দুর্বল বোধ করছিলেন পুরি বাবু। ভাবছিলেন জন্মদিনের দিন যদি কাছের মানুষ তার পাশে থাকতো তাহলে কতই না ভালো হতো।

এই ধরনের চিন্তা ভাবনা করতে করতে সকালে তিনি ফেসবুকে তার টাইমলাইনে তার একটি পোস্ট করে লেখেন, "আজ আমার জন্মদিন, কিন্তু শুভেচ্ছা জানানোর কেউ নেই| "

ফেসবুকের টাইমলাইনে স্ট্যাটাসটা আপডেট করার পরে পুরি বাবু সমস্ত টাই ভুলে যান। কারণ তিনি জানেন কেউ এসে তাকে শুভেচ্ছা জানাবে না। কিন্তু তিনি হয়তো এটা ভাবতেই পারেননি, আজকের দিনে এই সময়ের মধ্যেও তার জন্য একটি বড় উপহার অপেক্ষা করে আছে।

ফেসবুকের টাইমলাইন টা আমেরিকায় থাকা ছেলে এর চোখের সামনে ভেসে ওঠে। বাবা এর এই কিঞ্চিত আকাঙ্ক্ষা যদি তার ছেলে পূরণ করতে না পারে, তাহলে সে হয়তো ছেলে হওয়ার যোগ্য নয়।

কোন এক অফিসারের কাছে তিনি স্টেটাস টি ফরওয়ার্ড করেন এবং তিনিও কিঞ্চিৎ আকাঙ্ক্ষা প্রকাশ করে লেখেন, 'আমার বাবার নাম করণ পুরি। তার আজকে জন্মদিন এবং তিনি বাড়িতে আজ সম্পূর্ণ একা।

স্ট্যাটাসটি পাওয়ামাত্রই পুলিশ কমিশনার সৌরভ সিং তার থানার মহিলা পুলিশ প্রভাতী নেহা নামে একজনকে সঙ্গে সঙ্গে একটি কেক নিয়ে করণ পুরি এর বাড়িতে যাওয়ার কথা বলেন.

4 জন অফিসার সঙ্গে সঙ্গে বেরিয়ে একটি কেক এবং বার্থডে টুপি এর ব্যবস্থা করে পুরি বাবু এর বাড়ির সামনে হাজির হন। পুরি বাবু তাদের দেখে একটু হতভম্ব হয়ে পড়ে। অফিসাররা তাকে দেখে জিজ্ঞাসা করে তার নাম কি? তখন পুরি বাবু তার নিজের পরিচয় দিয়ে বলেন, "আমার নাম করণ পুরী। আমি এই বাড়িতে একা থাকি এবং আমি সিনিয়র সিটিজেন। আর আমার ছেলে আমেরিকায় থাকে।

এই কথা বলতে বলতেই একজন মহিলা পুলিশ কেকটা তার সামনে তুলে ধরে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, 'হ্যাপি বার্থডে আঙ্কেল', এবং আরো বাকি 3 জন অফিসার পুরি বাবুকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন 'হ্যাপি বার্থডে' এবং তারা সকলে মিলে তাকে কেক কাটার অনুরোধ জানায়।

পুরি বাবু সঙ্গে সঙ্গে কান্নায় ভেঙে পড়লেন। তিন সত্যি ভাবতেই পারেননি আজকের দিনে তাকে কেউ এরকম উপহার দিয়ে পুরস্কৃত করবে। তিনি অফিসারদের থেকে কিছুটা পিছিয়ে গিয়ে পকেট থেকে রুমাল বের করে তার চোখ দুটো মুছলেন। এবং পরে কেক টি কাটলেন।

এটা হয়তো পুরি বাবু এর চোখের জল. কিন্তু কান্না নয় এটা তার অবাধ খুশি এর শ্রাবন ধারা। কারণ এই যুগে যেখানে মানুষ একে অপরের সাথে আলাপ করাটাকে সময় নষ্ট করা ভাবে।  সেখানে এই  চার জন মানুষ তার একাকিত্বের সময়ে এক গুচ্ছ ভালোবাসা নিয়ে হাজির হয়েছে তার ছেলের অনুরোধে।

বন্ধুরা একটা কথা সব সময় মনে রাখবে তোমার সব থেকে কাছের মানুষ তোমার মা বাবা।  এরা দুজন ছাড়া আর কিন্তু কেউ ই তোমার শৈশব কালে রাত জেগে তোমার কান্না এর সাক্ষী হয়নি।

আজ তোমরা বড় হয়েছো, অনেকে হয়তো নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে পড়েছো। কিন্তু, তোমাদের এখন আর সেই মূহর্ত গুলো মনে নেই। অথচ কিন্তু তুমি যান। কারণ তুমি তোমার অজান্তেই সেই সাক্ষীর প্রমান।

বাবা মা এর বয়স হয়েছে। তাদের মতা মত এর সাথে তোমাদের মতামত এখন মেলে না, তাই নানা রকমের কথা শুনতে হয় তাদের। তোমাদের কাছে একটা অনুরোধ করবো একবার পুরোনো দিন এর কথা মনে করে এই আমেরিকা তে থাকা ছেলে টির মত তুমিও তোমার বাবা মা কে সারপ্রাইজ করে দেও। দেখবে অনেক খুশি হবে তারা। আর তোমার চোখ দিয়া ও জল ঝরবে অঝোরে।    

Comments

Post a Comment

Popular posts from this blog

মোটিভেশনাল স্পিকার সন্দীপ মহেশ্বরী জীবন কাহিনী

আমাদের জীবন অতিবাহিত করতে গেলে নিজেদেরকেই কিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। যে প্রশ্নগুলি আমরা নিজেরাই নিজেকে করি। কিছু ক্ষেত্রে উত্তর পেয়ে যায় আবার কিছু ক্ষেত্রে উত্তর পাই না। আর যখন উত্তর পাই না তখন মনে হয় জীবনটা হঠাৎ করে থেমে গেল।

যতক্ষণ না সে উত্তর আমরা খুঁজে পাই, মনে হয় জীবনটা আর সামনের দিকে এগোচ্ছে না। তখনই আমাদের কিছু মানুষের সাহারা লাগে। কিন্তু, জীবন আমাদের এমন একটা পর্যায়ে নিয়ে যায়, যখন সাহারা দেওয়ার মতন মানুষ কাছে পাইনা আমরা। আর ঠিক তখনই আমাদের ভিতরে এক অমানবিক ডিপ্রেশান নামক আত্মা ঢুকে বসে। আমরা প্রায় সকলেই এই ডিপ্রেশন নামক অমানবিক আত্মা এর কাছে হার মেনে যাই, আর নিজেকে শেষ করার পর্যন্ত চিন্তাভাবনা করে ফেলি।

কিন্তু এই মানুষটি যার কথা আমি আপনাকে বলছি, তিনি হলেন বেস্ট ইন্ডিয়ান মোটিভেশনাল স্পিকার সন্দীপ মহেশ্বরী। তার জীবনেও এরকম অনেক ওঠানামা এসেছে। কিন্তু আমাদের মত যদি তিনিও সেই ডিপ্রেশনকে, সেই সময় টিকে ধরে নিয়ে বসে থাকতেন তাহলে হয়তো আমরা আজকে তাকে যে জায়গায় দেখছি তাকে হয়তো সেই জায়গায় পেতাম না।

মোটিভেশনাল স্পিকার সন্দীপ মহেশ্বরী জীবন কাহিনী সন্দীপ মহেশ্বরী আমার ত…

Live Update : সাইক্লোন ঘূর্ণিঝড় আম্ফান

আম্ফন, আম্ফান, অ্যাম্ফান কলকাতা আই এম ডি এর অনুসারে এই ঘুর্ণবত এর সৃষ্টি দীঘা থেকে ১৭৭ কিমি দূরে দক্ষিণ পূর্ব দিকে। আর এই কারনে এই ঝড় কলকাতা তে বেশি প্রভাব ফেলবে ফনি ঝড় এর থেকে। বিশেষজ্ঞ দের মতে এই ঝড় কলকাতা এর নিকট উত্তর এবং উত্তর পূর্ব এর দিকে বাড়ার সম্ভাবনা তীব্র।

আগেই আমরা ফনি এর সাথে মোকাবিলা করে এসেছি। যদিও সেই ফনি সব জায়গায় তাণ্ডব দেখায়নি। কিন্তু যেখানে দেখিয়াছে সেখানে সব নিঃস্ব জয়ে গেছে। ফনি এর পর এবার এসেছে ঘুর্ণবাত ঝড় অম্ফান। বিশেষজ্ঞ দের মতে এই ঝড় আরো ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারে।
কলকাতা আই এম ডি এর অনুসারে এই ঘুর্ণবত এর সৃষ্টি দীঘা থেকে ১৭৭ কিমি দূরে দক্ষিণ পূর্ব দিকে। আর এই কারনে এই ঝড় কলকাতা তে বেশি প্রভাব ফেলবে ফনি ঝড় এর থেকে। বিশেষজ্ঞ দের মতে এই ঝড় কলকাতা এর নিকট উত্তর এবং উত্তর পূর্ব এর দিকে বাড়ার সম্ভাবনা তীব্র। 
এনডিআরএফ এর প্রধান এম এন প্রধান বলেছেন যে উড়িষ্যা এর নিকট হাওয়া এর গতি তীব্র হয়েছে। পারাদ্বীপ এ 100 কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় এই মুহূর্তে হাওয়া চলছে। এখনো পশ্চিমবঙ্গে এই হাওয়ার বেগ অতটা তীব্র হয়নি।
ওড়িশা এর বালাসোর এবং ভদ্রক অন্যদিকে পশ্চিমব…